Home / ডিজিটাল মার্কেটিং / এ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং / নিশ সাইট / কিভাবে একটি নিশ সাইটের জন্য সঠিক ডোমেইন নামটি পছন্দ করবেন?

কিভাবে একটি নিশ সাইটের জন্য সঠিক ডোমেইন নামটি পছন্দ করবেন?

আপনি একটা নিশ সাইট বানানোর চিন্তাভাবনা করছেন তখন সর্বপ্রথম আপনাকে একটি সঠিক ডোমেইনের দিকে নজর দিতে হবে।
ডোমেইনের নাম যেন আপনার সাইটের সাথে যথাযথ হয় এবং আপনার ব্রান্ডিং চালিয়ে নিতে সহায়তা করে তাই আপনাকে একটি ভালমানের সঠিক ডোমেইন নামটি নির্বাচন করতে হবে।
এখানে আমি আমার অবিজ্ঞতা এবং ইন্টারনেট বিশ্লেষণ করে যা বুঝতে পারেছি তার বিস্তারিত তথ্য আপনাদের সামনে পেশ করছি।

পোস্টের বিষয় সূচীঃ

নতুন ডোমেইন নাকি পুরতন ডোমেইন?

কিভাবে একটি নিশ সাইটের জন্য সঠিক ডোমেইন নামটি পছন্দ করবেন?

ডোমেইন কেনার কথা আসলেই প্রথমে আপনাকে দুটি বিষয়ে ভাবতে হবে। হয় আপনাকে একটি সম্পূর্ণ নতুন ডোমেইন নিতে হবে যা আগে কখনো ব্যবহৃত হয় নি অথবা একটি পুরাতন ডোমেইন নিতে পারেন যা আর এর মূল সাইটের ব্যবহারযোগ্য নয়।
প্রতিটি বিষয়ের আলাদা আলাদা কিছু সুবিধা এবং অসুবিধা আছে ।চলুন এই সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিই:

পুরাতন ডোমেইন

পুরাতন ডোমেইন বা মেয়াত্তীর্ণ ডোমেইন কেনার সবচেয়ে বড় সুবিধা হলো ব্যাকলিংক। আপনি এতে প্রচুর পরিমাণ ব্যাকলিংক পাবেন যা আপনার সাইটের এসইও এর জন্য অত্যন্ত জরুরী।
ব্যাকলিংক ছাড়াও আরো বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ জিনিস একই সঙ্গে পাবেন। যেমনঃ
– ডোমেইনের বয়স
– হাই ডোমেইন অথোরিটি
– পেজ র্যাং ক ইত্যাদি।
তবে অনেক সময় পুরোনো ব্যাকলিংক গুলো আপনার জন্য নেগেটিভও হতে পারে।
কিভাবে?
যদি আপনার ব্যাকলিংক গুলো এমন কোন ডোমেইনে তৈরী করা হয় যা আপনার বর্তমান ডোমেইনের সাথে মিলে না তাহলে এটি আপনার সাইটের জন্য ক্ষতি হতে পারে।
আমার অবিজ্ঞতায় অনেক সময় ভুল ডোমেইনের কারণে কিংবা নিম্নমানের ব্যাকলিংক বা স্প্যামিং ব্যাকলিংক প্রফাইলের কারণের ডোমেইনের র্যাং কিং যথাযথ হয় না।
এছাড়াও পূর্বের সাস্পেন্ড হওয়া ডোমেইনগুলো গুগল র‍্যাংকের জন্য গ্রহণযোগ্য নাও হতে পারে।

কিভাবে নিশ সাইটের জন্য একটি সঠিক পুরাতন ডোমেইন নির্বাচন করবেন?

সাধারণত একটি ডোমেইনের মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়ার সাথে সাথে তা নতুন ডোমেইনের জন্য নিলামে তোলা হয় অথবা মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়ার আগে নিলামে একটি মূল্যে নির্ধারণ করে নতুন অথোরিটি চাওয়া হয়।

এই সম্পর্কে চাইলে একটি ভিডিও দেখতে পারেনঃ

আপনার হাতে যদি সময় থেকে তবে এবং এই পদ্ধতি গুলো শিখতে চান তবে পোস্টটি পড়তেই থাকুন।

মেয়াদোত্তীর্ণ ডোমেইনগুলি কোথায় পাবেন?

খুব সহজ। গুগলে একটি Expire Domain Website এই রকম কী ওয়ার্ড দিয়ে খুজেন দেখবেন খুব সহজেই Expire Domain চেক করার ওয়েবসাইট গুলো পেয়ে যাবেন।

একটি Expire Domain এ কি কি দেখতে হয়?

আমি খুব কমই Expire Domain আমার নিশ সাইটের জন্য ব্যবহার করি। আমার যতদুর মনে পড়ে হয়ত ২/৩ বার মাত্র আমি Expire Domain নিয়ে কাজ করেছি।
কেন?
পুরাতন ডোমেইনগুলি র‍্যাঙ্কিং এর জন্য দারুন কাজে লাগে। নতুন ডোমেইনের থেকে পুরাতন ডোমাইন গুলি অনেক আগে থেকেই ব্যাকলিংক দেয়।মেয়াদোত্তীর্ণ ডোমেইনগুলি সঠিক ভাবে কাজে লাগাতে পারলে এইগুলি দুর্দান্ত ফলাফল দিবে।

ডোমেইন অথোরিটি চেকঃ

ডোমেইন অথোরিটি (ডি.এ) প্রতিটি একক ডোমেইনের জন্য তাদের নিজস্ব ফর্মুলায় চেক করে। অনেক ক্ষেত্রে তাদের এই ফলাফল গুগল র‍্যাংকিং এও পেতে সহাযতা করে।।
এখানে আপনার সাইটের জন্য ডোমেইন অথোরিটি চেক করতে পারেন OpenSiteExplorers. Org এইখানে থেকে।

পেজ অথোরিটি চেকঃ

এটিও ডোমেইন অথোরিটির মতই একটি কোম্পানির আরেকটি ফর্মুলা।ইন্টারনেটে প্রতিটি ডোমাইনের প্রতিটি পৃষ্ঠা ডি.এ. কর্তৃক সংরক্ষিত থাকে।
আমি এক্ষেত্রে বলবো- কমপক্ষে ডি.এ. ২০ থাকলে মেয়াদোত্তীর্ণ ডোমেইন নেওয়া যেতে পারে তবে যদি সৌভাগ্যবশত ৩০+ পাওয়া যায় সেটা এক কথায় অসাম হবে।

মোজ স্পাম স্কোরঃ

মোজ স্পাম স্কোর মোজ কোম্পানি দ্বারা পরিচালিত এমন একটি পদ্ধতি যেখানে তারা প্রতিটি ডোমেইনের বৈধতার জন্য একটি স্কোর নির্ধারণ করে।


আপনার কখনোই ৪+ স্প্যাম স্কোর পাওয়া ডোমেইন নেওয়া উচিৎ হবে না।
OpenSource Explorers আপনাকে আপনার কাঙ্ক্ষিত ডোমেইনের স্প্যাম স্কোর দেখতে সহাযতা করবে।আপনি যদি কাঙ্ক্ষিত ডোমেইনের স্প্যাম স্কোর দেখতে চান তবে মোজপ্রো (MozPro) তে জয়েন করতে পারেন।

ব্যাকলিংকগুলিঃ

ব্যাকলিংক হচ্ছে সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ একটি ডোমেইনের জন্য। মেয়াদোত্তীর্ণ ডোমেইন কেনার ক্ষেত্রে অবশ্যই আপনাকে ব্যাকলিংকগুলি চেক করতে হবে।
ব্যাকলিংকগুলি যদি স্প্যাম কোয়ালিটির হয় তবে সেক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই এই ধরনের ডোমেইনগুলি এড়িয়ে চলতে হবে। আর যদি লিংকগুলি হাই কোয়ালিটির হয় তবে সেক্ষেত্রে আপনি দেখে নিতে পারেন।
ব্যাকলিংকগুলি যদি ইংরেজিতে না হয় কিংবা অ-ইংরেজির হয় তবে সেক্ষেত্রে মেয়াদোত্তীর্ণ ডোমেইনগুলি না নেওয়াটাই বুদ্ধিমানের কাজ হবে।
ব্যকলিংক চেকের ক্ষেত্রে আপনি নিম্নলিখিত

ব্যাকলিঙ্ক টুলসগুলি

ব্যকলিংক  টুলসের জন্য ব্যবহার করতে পারেনঃ
1. OpenSiteExplorer.Org (Free)
2. Ahrefs.Com (Paid Service)

ব্যাকলিংকগুলি চেক করতে হবে।

ব্যাকলিংক চেক করার জন্য কি কি দেখবেন?

1. Number of Links
2. Number of Linking Domains
3. Anchor Text Variation

কিভাবে সিদ্ধান্ত নিবেন?

লিংকের সংখ্যাঃ

সাইটের জন্য উচ্চ মানের লিংকের সংখ্যা যত বেশি হবে, তত ভাল। আমি আবারো বলছি- ভাল মানের ব্যাকলিঙ্ক আপনার সাইটের জন্য সবচে বেশি কার্যকরী র‍্যাঙ্কিং পাওয়ার জন্য।

কোয়ালিটি লিঙ্কঃ

কতগুলি লিংক আপনি আপনার সাইটের জন্য নিয়েছেন কিংবা আপনি কতগুলি লিংক অন্য সাইটে দিয়েছেন গুগল এই সব কিছু রেকর্ড রাখে এবং আপনার সাইটের জন্য একটা নির্দিষ্ট মাত্রায় মূল্যায়ণ করে।
যদি আপনার সাইটে ১০০টি লিংক থাকে এবং এর মধ্যে মাত্র কয়েকটি অন্য সাইটের জন্য তাহলে বিষয়টি মেমানান।

ডোমেইনের বয়সঃ

র‍্যাঙ্কিং এর জন্য গুগল সব সময় পুরোনো ডোমেইনগুলিকে বেশি গুরুত্ব দেয়। তাই পুরাতন ডোমেইন কেনার ক্ষেত্রে কমপক্ষে ২ বছরের বেশি ডোমেইনগুলিকে পছন্দ করার পরামর্শ দিব।

গুগল পেজ র‍্যাংকঃ

যখন আপনি একটি পুরাতন ডোমেইন নিচ্ছেন তখন অবশ্যই এতে গুগল পেজ র‍্যাঙ্ক আছে কি না সেটা চেক করে নিবেন।
পেজ র‍্যাঙ্ক যদি ২ অথবা ২ এর বেশি হয় তাহলে তা বেশ ভাল।
এটি তেমন গুরুত্বপূর্ণ নয়। যেখানে আপনি সাইটের কোয়ালিটি, সম্ভাবনা ব্যাকলিঙ্ক, এবং অন্যান্য বিষয়াদি চেক করে নেন।

আগের পোস্টের ইতিহাস চেক করুন Archive.Org থেকে।

ধরুন আপনি একটি পুরাতন ডোমেইন কিনতে চাচ্ছেন তাহলে আপনি কি সেই ডোমেইনটার পুরাতন লুক আপ টা দেখবেন না? অবশ্যই, হ্যাঁ।
আপনি আপনার কাঙ্ক্ষিত সাইটের নামটি দিয়ে খুব সহজেই সেই সাইটের আগের লুকআপ কেমন ছিল, কি ধরনের পোস্ট ছিল, কি ধরনের ফিডব্যাক ছিল ইত্যাদি খুব সহজেই চেক করে করে নিতে পারেন Archive.Org থেকে।
কিভাবে?
আপনি Archive.Org এই ঠিকানায় যান,

ব্যাকলিংক চেক করার জন্য কি কি দেখবেন?

আপনার সাইটের নামটি দিয়ে Go তে ক্লিক করুন একটি ক্যালেন্ডার পাবেন সেখানে তারিখগুলির মধ্যে একটিতে ক্লিক করলে সেই সাইটির পূর্বের সেই সময় কি রকম ছিল সেটা নিমিশেই জানতে পারবেন।

কিভাবে একটি পুরাতন ডোমেইনের ব্যাপারে চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিবেনঃ

আপনি যদি দেখেনে যে উপরের সবগুলি মেট্রিকগুলি কোন নির্দিষ্ট সাইটের দ্বারা পুরণ করা হয়েছে, এবং সাইটে একটি দীর্ঘমেয়াদী কাজের সুযোগ রয়েছে তবে আপনি নির্দিষ্ট ডোমেইনটি নিতে পারেন।

ব্র্যান্ড নিউ ডোমেইনঃ

একটা নতুন ডোমেইন একটা নতুন চ্যালেঞ্জ। আপনাকে সব কিছু শুরু থেকে করতে হবে।
আপনি আপনার নতুন ডোমেইনে যে ব্যাকলিঙ্ক তৈরী করেছেন তার সব গুলোই আপনার সাইটের জন্য কাজে দিবে।
সমস্থ লিংক আপনার সাইটের সাথে প্রাসঙ্গিক হবে।
তবে গুগল নতুন ডোমেইনে বিশ্বাস করতে পারে না। তাই আপনাকে স্প্যামিং এড়িয়ে আরো বেশি কাজ করতে হবে।
সার্চ ইঞ্জিন গুলো একই মানের ভাল কোয়ালিটির ডোমেইনের জন্য নতুন ডোমেইনগুলিকে সাজেস্ট করে না।
তবুও
আমি আপনাকে একটি নতুন ডোমেইন নিয়ে কাজ শুরু করতে সুপারিশ করবো।
বিশেষ করে নতুন দের জন্য সুপারিশ করবো যাতে তারা ভুল মেয়াদোত্তীর্ণ ডোমেইন নেওয়ার থেকে একটি সম্পূর্ণ নতুন ডোমেইনে কাজ করে।
এই অতিরিক্ত কাজ করাটাকে একটা শিখার সুযোগ হিসেবে মনে করতে পারেন। যা আপনি কখনোই একটি মেয়াদোত্তীর্ণ ডোমেইনের মধ্যে পাবেন না। এছাড়াও এতে অপ্রাসঙ্গিক এবং স্প্যামিং ব্যাকলিঙ্কগুলি এখানে থাকার সুযোগ থাকবে না।

আপনার নিশ সাইটের জন্য কি EMD প্রযোজন?

EMD বা Exact Match Domain আপনার

\

এসইও ওয়ার্ল্ডে দারুন কাজে আসবে। একটা ভাল মানে কী ওয়ার্ড সমৃদ্ধ ডোমেইন আপনার জন্য দারুন কাজে আসবে। আপনি প্রতিযোগীতামুলক বাজারে অন্যান্য ডোমেইনের চেয়ে সঠিক প্রাসঙ্গিক ডোমেইন নিয়ে সার্চ ইঞ্জিনে অধিক গ্রহণযোগ্যতা পাবেন।
আপনি যদি গুগল র‍্যাঙ্ক করতে চান তবে আপনাকে আপনার সাইটের ব্র্যান্ড সিগন্যাল তৈরী করতে হবে।

ব্র্যান্ড সিগন্যাল তৈরী করার সব থেকে ভাল উপায় হল আপনার সাইটকে একটি ইউনিক ব্র্যান্ড হিসেবে তৈরী করুন।
বিশ্বের সব গুলো ব্রান্ড একটা ব্র্যান্ডেবল ডোমেইন নাম দিয়ে শুরু হয়।
যখন আপনার সাইটকে একটি ব্র্যান্ড হিসেবে পরিচালনা করতে শুরু করবেন তখন এটি আপনাকে আরো দীর্ঘ সময় ধরে এটির সাথে কাজ করার সম্ভাবনা তৈরী করবে।

ডোমেইন পছন্দ করার সময় কি কি বিষয় বিবেচনায় আনবেন?

নতুন ডোমেইন কেনার ক্ষেত্রে আপনাকে বেশ কয়েকটি পরামর্শ দিবো যাতে করে আপনি নতুন ডোমেইন কেনার ক্ষেত্রে সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে পারেন।

ভবিষ্যতের কথা ভাববেনঃ

আপনি যখন একটি নতুন সাইট নিচ্ছেন তখন নিজেকে প্রশ্ন করুন
আপনি কি আশা করেন আপনার সাইটটি ভবিষ্যতে আপনার সাইটটি বৃদ্ধি পাবে এবং আপনার অর্থ উপার্জন অব্যাহত রাখবে নাকি নিছক সখের বশে মজা করে একটি সাইট বানাতে চান কিছু সময়ের জন্য?
ভবিষ্যতের প্রকল্প এমন হওয়া উচিৎ যা দীর্ঘমেয়াদি সময় ধরে চলবে এবং এখানে অনেকগুলি বিষয় সংযুক্ত হতে পারে।
ডোমেইন নাম পছন্দ করার ক্ষেত্রে ভবিষ্যতে আপনার সাইটটি কি রকম প্রভাব ফেলবে তা নিয়েও ভাবতে হবে।
সবথেকে বড় একটি বিষয়ে আপনাকে সতর্ক করে দিতে চাই; যখন আপনি একটি ডোমেইন নাম পছন্দ করবেন তখন অবশ্যই এটি নামের বানানের ক্ষেত্রে স্পেসিক হতে হবে। যাতে করে পরে এটি নিয়ে আর কোন সমস্যা তৈরী না হয়।

ডোমেইনের নামের দৈর্ঘ্যঃ

ডোমেইনের এক্সটেনশন ছাড়াই ডোমেইনের দৈর্ঘ্য ১ অক্ষর থেকে সবোর্চ ৬৩ টি বর্ণের হতে পারে।
এটি অনেক কমন একটি বিষয় তাই এটি নিয়ে তেমন ব্যাখ্যা করার কিছু নেই।
তবে আপনার ডোমেইন নামটি যত বেশি বড় হবে এটি মনে রাখা তত বেশি কঠিন হবে। তাই ডোমেইন নামটি সংক্ষিপ্ত রাখুন।

ডোমেইন এক্সটেনশনঃ

আপনি যদি একটি নির্দিষ্ট অঞ্চলের জন্য কাজ করতে চান তবে আঞ্চলিক ডোমেইনগুলি আপনি নিতে পারেন। তবে যদি সারা বিশ্বে বা ওয়ার্ল্ড ওয়াইড বিজনেস করতে চান তবে আমি সুপারিশ করবো .Com ডোমেইন নেওয়ার জন্য।
যেকোন ডোমেইনের ক্ষেত্রে .com এক্সটেনশন সর্বাধিক স্বীকৃত এবং “ডিফল্ট” ডোমেইন হিসেবে বিবেচিত।


এছাড়াও .Com অন্যান্য এক্সটেনশনের তুলনায় ব্র্যান্ডিংয়ের সাথে যংযুক্ত হতে সাহায্য করে। কারণ বিশেওে মানুষ ডোমেইন বলতেই ডট কম কে মনে করে।
যদিও এটি ঠিক যে অন্যান্য এক্সটেনশনগুলিও র‍্যাংকিং এর জন্য একই ভাবে সার্চ ইঞ্জিনগুলিতে কাজ করবে তবুও ডট কম মনে রাখা সবচেয়ে সহজ এবং দর্শনার্থীদের দ্বারা খুব সহজেই স্বীকৃত।
আপনি যদি কোন ভাবেই ডট কম ডোমেইন না পান তবে আপনি ডট নেট বা ডট অর্গ নিতে পারেন ।

ডোমেইনের নামের সাথে হাইপেন ব্যবহারঃ

অনেকেই কাঙ্ক্ষিত ডোমেইন নামটি না পাওয়ার কারনে ডোমেইনের নামের সাথে হাইপেন ব্যবহার করন তবে এটি ব্যবহার করা একদমি ঠিক না ।
এটি আপনার সাইটটিকে আরো বেশি মনে রাখার ক্ষেত্রে কঠিন এবং অনেক সময় আপনার প্রত্যাশি ভিজিটর হাইপেন ছাড়া মুল সাইটে চলে যেতে পারে।তাই আপনি দৃঢ়ভাবে বলবো আপনি আপনার ডোমেইনের নামের ক্ষেত্রে কখনোই হাইপেন ব্যবহার করবেন না।

ডোমেইনের সাথে নাম্বার ব্যবহারঃ

আপনি যদি আপনার ডোমেইনের সাথে কোনের সাল, বা স্মৃতিভিত্তিক অন্য কোন সংখায় ব্যবহার করেন তবে এইগুলি আপনার সাইটটি মনে রাখা আরো কষ্টকর করে তুলবে এবং এইগুলি আপনাকে ব্র্যান্ড নাম হিসেবে পরিচিতি দিবে না।

ডোমেইনের সহজবোধ্যতাঃ

আপনার ডোমেইন নামটি হবে অতি সাধারণ এবং সহজবোধ্য। নামটি হবে ছোট এবং ইউনিক । কারণ একই নামের সাথে আপনাকে অন্যান্য সোসাইল লিঙ্কগুলিও আপনাকে নিতে হবে তাই যথাসম্ভব ডোমেইনটি ইউনিক হতে হবে।
ধরুন আপনার কীওয়ার্ডটি হল বেস্ট বেবি জাম্পার এবং এখন আপনি কীওয়ার্ডের জন্য একটি ডোমেইন নাম নিবন্ধিত করতে চান BestBabyJumper.Com আপনি নেওয়ার জন্য Available পাচ্ছেন তাহলে কি সেটাই নিবেন? নাকি অন্যটা?
হ্যাঁ আপনি এটি নিতে পারেন তবে এক্ষত্রে আমি আপনাকে পরামর্শ দিবো BabyPlayable.com বা BabyPlayGears.Com আপনি যখন শুধুমাত্র একটি নির্দিষ্ট কীওয়ার্ড দিয়ে ডোমেইন নাম পছন্দ করবেন তখন সেটা তার বাইরে যেতে পারবে না। কিন্তু ওই একি বিষয়ের অন্য বিষয়াদি যদি মাথায় রেখে ডোমেইন নাম পছন্দ করেন তবে সেটা আপনার কন্ট্রেন্ট এর জন্য অনেক সুবিধা হবে।

ডোমেইন নাম জেনারেটর টুলসঃ

আপনি চাইলে অনলাইনে ডোমেইন নাম জেনারেটর টুলস গুলি ব্যবহার করতে পারেন।এইগুলি আপনাকে আপনার কাঙ্গিত ডোমেইন নাম পছন্দ করার ক্ষেত্রে অনেক সাহায্য করতে পারে।
ইন্টারনেটে আপনি এমন অনেক সাইট পাবেন যেগুলি আপনাকে আপনার কীওয়ার্ডের সাথে মিল রেখে কয়েক হাজার ডাটা বেজ থেকে আপনার জন্য সিলিমার বা একই মানের প্রতিশব্দ ব্যবহার করে আপনাকে সাজেশন দিতে পারবে।
আপনি ঐ সমস্থ সার্চ রেজল্ট থেকে খুব সহজেই আপনার কাঙ্ক্ষিত ডোমেইনটি কি হতে পারে সেই সম্পর্কে একটি ধারনা পেতে পারেন।

আপনার সাইটিকে একটি ব্র্যান্ড হিসেবে পরিচিত করুন।

পরিশেষেঃ
আপনার ডোমেইন নামটি আপনার জন্য একটি সম্পদ। এটি অনেক যত্ন নিয়ে তৈরী করতে হয়। আপনার কষ্ট আপনার সময় যেন বৃথা না হয় সেই দিকে খেয়াল রেখে একটি ডোমেইনের যাত্রা শুরু করুন। ধন্যবাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.