Home / আত্ম উন্নয়ন / উপস্থাপনা / উপস্থাপক / একজন বক্তার কি কি গুন থাকা দরকার

একজন বক্তার কি কি গুন থাকা দরকার

উপস্থাপনার জন্য একজন বক্তার কি কি গুন থাকা দরকার সেটা খুব সহজেই এখানে ব্যাখ্যা করা হয়েছে। আপনি যদি একজন ভাল বক্তা বা উপস্থাপক হতে চান তাহলে আপনাকে নূন্যতম যে সমস্থ গুণাবলি অর্জন করতে হবে সেগুলো জানতেই এই পোস্টঃ

এই পোস্টে একজন বক্তার প্রধান ৭ টি গুন নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে।

 

SPEAKER এর ৭ টি গুন অর্থাৎ

ইংরেজি শব্দ Speaker (স্পীকার)এর দ্বারাই এর ভালো ভাবে ব্যাখ্যা করা যেতে পারেঃ

SPEAKER এর ৭ টি গুন  অর্থাৎ

  • S মানে Stimulating        – “উত্তেজনা সৃষ্টিকারী”
  • P মানে Positive               – “ইতিবাচক”
  • E মানে Effective             – “প্রভাবশালী”
  • A মানে Aimful                 – “লক্ষ্যবান”
  • K মানে Knowledgeable – “জ্ঞানবান”
  • E মানে Entertaining      – ‘রোচক মনোরঞ্জক”
  • R মানে Rational              – “বিবেকশীল, যুক্তিবাদী”

এবার এখানে ধারাবাহিকভাবে উপরের একটা একটা পয়েন্ট ধরে ধরে বিস্তারিত আলোচনা করবো।

১. S=STIMULATING -উত্তেজনা সৃষ্টিকারীঃ

 বক্তার কি কি গুন থাকা দরকার

যার কথা মনে এক নতুন রোমাঞ্জ আর উত্তেজনার সৃষ্টি করে। যিনি জীবন আর লক্ষ্যের প্রতি আশা সৃষ্টি করেন। যিনি চিন্তা ভাবনা করার জন্য বাধ্য করে তোলেন এবং এই যান্ত্রিক জীবনে নতুন রঙ ভরে দেওয়ার ক্ষমতা রাখেন।

একজন শ্রোতা যার কথার মাঝে নিজের প্রতিচ্ছবি দেখতে পান।

 

২. P=Positive – ইতিবাচকঃ

যিনি সব সময় ইতিবাচক।যার চিন্তাধারা আমাদের শিখর আর জয়ের দিকে নিয়ে যায় এবং নিরাশার ভেতরে আশার সঞ্চার করে, যিনি জীবনের কঠিন মূহুর্তগুলোকে মোকাবিলা করার পথ দেখান। যিনি সর্বদাই পিঠ চাপড়ে উৎসাহিত করেন আর প্রেরণা দেন।

যিনি সমস্যায় বিচলিত না হয়ে সমস্যার সমাধানের কথা বলেন আর নিরাশার মূহুর্তগুলোয় আমরা যার দিকে আশাভরা দৃষ্টিতে তাকাতে পারি। যিনি নিজের সঙ্গী সাথী আর অধীনস্থদের মনোবল বাড়িয়ে তুলে তাদের নতুন লক্ষ্যে পাঠাতে সক্ষম হন।

 

৩. E=Effective – প্রভাবশালীঃ

কোন প্রডাক্ট বিক্রি করাই হোক, প্রেরণা জোগানোই হোক বা পরীক্ষা দেওয়াই হোক, যেকোন জায়গায় এক প্রভাবশালী বক্তা শ্রোতাদের প্রভাবিত করে তোলেন।

যিনি নিজের বক্তব্য জোরালো শব্দের মাধ্যমে ব্যক্ত করেন আর শ্রোতাদের মনোযোগ আকৃষ্ট করে নেন।

 

৪. A=AIMFUL -লক্ষ্যবানঃ

একজন বক্তার কি কি গুন থাকা দরকার

 

যার কথার ভেতরে লুকিয়ে থাকা বা সুস্পষ্ট কোন লক্ষ্য থাকে। যার কথা সেই লক্ষ্যের ওপরে কেন্দ্রভুত থাকে। যিনি নিজের কথায় নিজের স্পষ্ট লক্ষ্য, সেটাকে পাবার পরিকল্পনা এবং নিজের স্বপ্নকে অন্যদের কাছে পর্যন্ত পৌছে দেন।

৫. K=KNOWLEDGEABLE –জ্ঞানবানঃ

যিনি নিজের বিষয়ে পূর্ণ অধিকার এবং পূর্ণ জ্ঞানের সঙ্গে নিজের বক্তব্য রাখেন। যিনি বক্তব্য রাখার আগে পূর্ণ প্রস্তুতি নেন আর ঠিক কি বলতে হবে, সেই ব্যাপারে যার পূর্ণ জ্ঞান থাকে।

৬. E=ENTERTAINING -রোচক-মনোরঞ্জকঃ

যার কথা লাগাতার শুনে চলার পরেও শ্রোতারা “বোর” হন না। যার ভেতরে নিজের শব্দ দ্বারা শ্রোতাদের হাসানোর, চকিত করে তোলার আর কাঁদানোর ক্ষমতা থাকে।

৭. R=RATIONAL বিবেকশীল, যুক্তিবাদীঃ

একজন বক্তার কি কি গুন থাকা দরকার- smgrgroup

যিনি সময়, পদ, অনুষ্ঠান, শ্রোতা আর উদ্দেশ্যকে মাথায় রেখে পূর্ণ বিবেকের সাথে নিজের বক্তব্য রাখেন। যিনি বক্তব্য রাখার আগে বিবেক আর যুক্তি দিয়ে নিজেকে পরীক্ষা করেন।

এই সব গুনগুলোর ভিতরে অধিকাংশ গুন জীবনে সফল হবার জন্য অনিবার্য। শুধুমাত্র মঞ্চে উঠে ভাষণ দেবার জন্যেই নয়; সাধারণ সামাজিক জীবনে এই সব গুন আপনাকে বিশেষ স্থান প্রদান করতে পারে। পরিবারে মাতা বা পিতা হিসেবে, স্কুলের শিক্ষক হিসেবে, অফিসের বস বিসেবে, একজন প্রোফেশনাল হিসেবে, সব জায়গায় প্রতি মূহুর্তে আপনাকে একজন বক্তার ভুমিকা পালন করতে হয়। এই সব গুনের কিছুটাও আপনাকে বিশিষ্ট করে তুলতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.